লিটার অফ লাইট বাংলাদেশ সম্পর্কে বহুল জিজ্ঞাসিত প্রশ্ন ও উত্তর ।

উত্তরঃ লিটার অফ লাইট বাংলাদেশ একটি গবেষণাভিত্তিক সামাজিক প্রতিষ্ঠান (Social Enterprise). সোলার প্রযুক্তি দিয়ে কিভাবে সহজে বিদ্যুৎ সমস্যার সমাধান করা যায় তার উদ্ভাবন নিয়ে কাজ করে এবং উদ্ভাবিত প্রযুক্তি বিনামুল্যে মানুষের দোরগোড়ায় পৌছিয়ে দেয়।-

  • লিটার অফ লাইট বাংলাদেশ কি সামাজিক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন বা এনজিও?

উত্তরঃ না, লিটার অফ লাইট বাংলাদেশ সরকারি নিবিন্ধিত একটি গবেষণা প্রতিষ্ঠান। তবে উদ্ভাবনগুলো ইমপ্লিমেন্টের জন্য বিভিন্ন স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্বেচ্ছাসেবীদের প্রশিক্ষণ দিয়ে প্রকল্পে যুক্ত করে। বিনামুল্যে সেবা দেয় বলে অনেকেই স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন বা এনজিও ভেবে থাকে।

  • তবে স্বেচ্ছাসেবী নিয়ে কাজ করার অনুমতি আছে?

উত্তরঃ আমরা মূলত প্রশিক্ষণ দেই বিনামুল্যে সোলার ল্যাম্প তৈরির ব্যাপারে, এবং প্রশিক্ষণের মাধ্যমেই ল্যাম্প তৈরি হয়। এক্ষেত্রে স্বেচ্ছাসেবীরা স্বেচ্ছায় কাজ করলেও মূলত তারা প্রশিক্ষণার্থী। এছাড়া আমরা ইন্টার্নশিপ সহ আরও কয়েকটি প্রোগ্রামের মাধ্যমে তরুণদের যুক্ত করি এই মহৎ কাজে।

  • আপনারা কি কি করেন?

উত্তরঃ আমরা গবেষণা করি, গবেষণালব্ধ ইমপ্লিমেন্ট করার উপযোগী উদ্ভাবন গুলো যেমন সহজলভ্য জিনিস প্লাস্টিক বোতল, ছোট সোলার, ব্যাটারি, পিভিসি পাইপ, সার্কিট দিয়ে তৈরি সোলার ল্যাম্প এবং সোলার স্ট্রিটলাইট তৈরি করে বিনামুল্যে বিতরণ করি প্রকল্পের মাধ্যমে। উদ্ভাবনী প্রশিক্ষণ দেই।

  • আপনাদের অর্থায়ন কিভাবে হয় যেহেতু বিনামূল্যে সেবা দেন?

উত্তরঃ যেহেতু আমরা এনজিও বা স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন নই, আমরা বিদেশি অনুদান নিতে পারিনা। আমরা মূলত প্রাতিষ্ঠানিক পার্টনারশিপের মাধ্যমে স্পন্সর, সিএসআর ফান্ড, রিসার্চ গ্র‍্যান্ট, কন্সাল্টেন্সি ফী এবং মার্চেন্ডাইজ সেলসের মাধ্যমে হয়ে থাকে। এখান থেকেই মূলত অপারেশনাল খরচ, রিসার্চ এবং প্রকল্প ব্যয় হয়। যেহেতু এরকম অর্থায়ন দ্বিপাক্ষিক চুক্তির মাধ্যমে হয়, আমাদের অডিট এবং উচ্চপর্যায়ের ট্রান্সপারেন্সি প্রসেসের মধ্যে দিয়ে যেতে হয়।

  • আপনাদের কিছু কিছু প্রজেক্টে পেইড স্টাফ নেন কেন?

উত্তরঃ আমাদের যেহেতু আয় নেই, আমরা চেষ্টা করি তরুণদের দেশের প্রতি দায়বদ্ধতা এবং উদ্ভাবনী আগ্রহকে এক করে দেশের কাজে যুক্ত করতে। এতে তারাও শেখে, দেশেরও উন্নয়ন হয়, আমাদেরও অর্থের যোগান নিয়ে ভাবতে হয়না।তবে কিছু বিশেষ প্রজেক্টে ফুলটাইম সময় দিতে হয়, পুরোপুরি চাকরির মত। সেক্ষেত্রে প্রজেক্ট পার্টনার সংস্থা যদি প্রজেক্ট টিমের ব্যয় বহণ করতে চায়, সেক্ষেত্রে আমরাও প্রজেক্ট বেসিস স্যালারি দিতে পারি।

  • আপনাদের সাথে যোগাযোগের মাধ্যম?

উত্তরঃ ফেসবুকে মেসেজ দেয়া যায়, ফেসবুক গ্রপ Liter of Light Bangladesh এ যুক্ত হওয়া যায়, ইমেইল করা যায় literoflightbangladesh@gmail.com

173Safayet and 172 others5 comments3 sharesLikeCommentShare

Leave a Comment

Your email address will not be published.